info@bangladeshtourismguide.com
Mystery expedition from Barabkund root to Chandranath peak
Chittagong, Chittagong
Icon
Km
1 Nights - 1 Days
Icon
Tour Type
Daily
Icon
Max Group Size
0 peoples
Icon
Reviews
(0)

OVERVIEW

 
আমার জন্ম সীতাকুন্ড সংলগ্ন এলাকায় পাহাড়ের কোলে এবং জন্মাবধি আমি এসকল পাহাড়সমূহ দেখে, এদের কোলে খেলে বড় হয়েছি। একটু বড় হবার পর ২০০৪ সাল থেকে আমি সীতাকুন্ডের চন্দ্রনাথ পাহাড় ও তদসংলগ্ন এলাকায় ঘুরাঘুরি শুরু করি। কোন এক অমোঘ আকর্ষণে আমি এই এলাকায় ছুটে গিয়েছি বার বার। এখন পর্যন্ত চন্দ্রনাথের চূড়োয় মেলার সময় বাদে ১২ বার আরোহণ করেছি, সলো করেছি, অনেক ঝামেলা করে চন্দ্রনাথ চূড়োয় রাত কাটিয়েছি। শুধু হিন্দু ধর্মে নয় বরং বৌদ্ধ ধর্মানুসারেও এ পাহাড় পবিত্র এবং এ পাহাড়ের চূড়ায় যে শিবমন্দিরের পাশাপাশি একটি বৌদ্ধ জাদি আছে তা আমাদের অনেকেরই অজানা। জাতক কাহিনীর মিথ বলে স্বয়ং গৌতম বুদ্ধ সিদ্ধার্থ এ পাহাড়ে আরোহণ করেছিলেন। হাজার হাজার মানুষের মত আমার প্রিয় লেখক বিভূতিভূষণও দুই দুইবার আরোহণ করেছেন এই পাহাড়ে। সব পাহাড়ই স্পেশাল ও পবিত্র। কারণ বিশাল পাহাড়ের সামনে দাড়ালেই নিজের ক্ষুদ্রতা ও স্রষ্টার/প্রকৃতির বিশালতা অনুধাবন করা যায় নিজের মত করে। তবু কেন জানি চন্দ্রনাথ শীর্ষ আমার কাছে একটু বেশিই স্পেশাল। একটু বেশিই পবিত্র। তাই মোহগ্রস্থ হয়ে বার বার এখানে ফিরে আসা আমার কাছে এক অন্তর্যাত্রা। আমি আমার এই অনুভূতি ছড়িয়ে দিতে চাই অন্যদের মাঝেও যারা সময়-সুযোগ ও উপযুক্ত সঙ্গীর অভাবে চাইলেও চট্টগ্রামের সবচে উচু এই পাহাড়টিকে (১১৫৮ ফুট) আলিংগণ করতে পারছেন না। (পাহাড় জয় এই শব্দটির ঘোর বিরোধী আমি, পাহাড়কে কখনো জয় বা পদানত করা যায় না, পাহাড় মানুষকে বিনয়ী ও নিরহংকারী করে, জয় টাইপের কোন বিশেষণ তাই এখানে নিস্প্রয়োজন)
চন্দ্রনাথ মন্দির ও শীর্ষ স্পেশাল এই কারণে যে এটি পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ পাচটি শিবমন্দিরের একটি। বাকিগুলো হলো নেপালের পশুপতিনাথ, কাশিতে বিশ্বনাথ, পাকিস্তানে ভুতনাথ, মহেশখালীর আদিনাথ। পুরাণানুসারে অযোধ্যার রাজা দশরথের পুত্র রামচন্দ্র তার বনবাসের সময় তার ভাই লক্ষণ ও স্ত্রী সীতাসহ এখানে এসেছিলেন। মহামুণি ভার্গব তাঁরা আসবেন জানতে পেরে তাঁদের স্নানের জন্য তিনটি কুণ্ড সৃষ্টি করেন এবং রামচন্দ্রের এখানে ভ্রমণ কালে তাঁর স্ত্রী সীতা এই কুণ্ডে স্নান করেন। এই কারনেই এখানকার নাম সীতাকুণ্ড বলে অনেকে ধারনা করেন। সতীত্বের পরীক্ষা সংক্রান্ত আরেকটি মিথও শোনা যায়। তাছাড়া আরেক পৌরাণিক কাহিনী অনুসারে সত্য যুগে দক্ষ যজ্ঞের পর সতী মাতা দেহ ত্যাগ করলে হিমালয় পর্বতে মহাদেব সতীর মৃতদেহ কাঁধে নিয়ে বিশ্বব্যাপী প্রলয় নৃত্য শুরু করলে বিষ্ণু দেব সুদর্শন চক্র দ্বারা সতীর মৃতদেহ ছেদন করেন। এতে সতী মাতার দেহখন্ডসমূহ ভারতীয় উপমহাদেশের বিভিন্ন স্থানে পতিত হয় এবং এ সকল স্থানসমূহ শক্তিপীঠ হিসেবে পরিচিতি পায়। এখানে হিন্দু সতী দেবীর দক্ষিণ হস্ত পতিত হয়েছিল।
পৌরাণিক কাহিনী ছাড়াও নব্যপ্রস্তর যুগের দিকে সীতাকুণ্ডে মানুষের বসবাস শুরু হয় বলে ধারনা করা হয়। চন্দ্রনাথ সংলগ্ন এলাকা থেকে আবিষ্কৃত প্রস্তর যুগের জনগোষ্ঠীর হাতিয়ার গুলো তারই প্রমাণ বহন করে। ১৮৮৬ সালের দিকে এখান থেকে দশ হাজার বছর আগের হাতিয়ার পাওয়া যায় বলে ভারতীয় প্রত্নতত্ববিদ রাখালদাশ বন্দোপাধ্যায় তার বই "বাংলার ইতিহাস" এ উল্লেখ করেন।

HIGHLIGHTS

    যা নিবেনঃ
    ভ্রমণপিপাসু,ধৈর্য্যশীল,সব পরিবেশে মানিয়ে নিতে প্রস্তুত অনুসন্ধিৎসু মন
    ব্যাকপ্যাক, রেইন কাভার না থাকলে ক্যামেরা ও অন্যান্য ইলেকট্রনিক ডিভাইস বৃষ্টি থেকে বাচাতে পলিথিন।
    কেডস না প্লাস্টিকের স্যান্ডেল।
    আরামদায়ক সুতি বা সহজে শুকায় এমন পোষাক
    কিছু শুকনো খাবার, বাদাম, খেজুর, পিনাট বার, ক্যান্ডি
    স্যালাইন , গ্লুকোজ
    পানিঃ যার যার পানির বোতল অবশ্যই নিজেকে বহন করতে হবে

     

    যোগাযোগ ও বিকাশের পার্সোনাল নাম্বারঃ
    অপু নজরুল
    ০১৭১২৪৬৯৯৩৫

ITINERARY

শুধু চন্দ্রনাথ নয়, এই ইভেন্টে আমি আরো যোগ করেছি আমার দেখা এই অঞ্চলের সবচে রহস্যময় একটি ট্রেইল। যে ট্রেইলে আমরা দেখবো কালভৈরবীর মন্দির, যেখানে কালি সাধক তান্ত্রিকেরা কালো যাদুর চর্চা আর নরবলি দিতো শতাব্দীকাল আগেও। এখনও কালো যাদুর চর্চা চলে পাহাড়ের গোপন জঠরে জঠরে, তারই কিয়দাংশ সুযোগ হলে দেখে আসবো আমরা। আমরা ছোটবেলা থেকেই সাধারণ জ্ঞানের বইয়ে জেনে এসেছি দেশের একমাত্র হট স্প্রিং বা গরম পানির ঝর্ণা সীতাকুন্ডে অবস্থিত। আমরা এবার দেখবো এই হট স্প্রিং ও সাথে ভূগর্ভস্থ অগ্নিকুন্ড যেখানে পানির উপর আগুন সারা বছর অনির্বাণ জ্বলছে। ভাঙ্গা মন্দিরের সিড়ি বেয়ে যখন ভূগর্ভের অন্ধকারে নেমে যাবেন তখন অজানা আতংকে গা ছমছম করবে, আপনি যেন প্রবেশ করবেন ইতিহাসের এক অজানা অধ্যায়ে, সময় থেকে হাজার বছর পিছিয়ে গিয়ে বিচ্ছিন্ন এক প্রাগৈতিহাসিকতায়! ইদানীং আমার লেখা পড়ে অনেকেই এদিকে যেতে চাচ্ছেন, তাদের রুট বাতলে দিচ্ছি, উপযুক্ত দিক-নির্দেশনাও দিচ্ছি এবং সাহসী কয়েকজন ইতিমধ্যে ঘুরেও এসেছেন। কিন্তু এই ট্রেইলটি নির্জন, এবং একে ঘিরে নানান ভৌতিক রটনা (মনুষ্যসৃষ্ট ঘটনাও আছে) থাকায় এবং সংগীর অভাব ও নিরাপত্তাহীনতার কারণে যারা যেতে পারছেন না তাদের জন্যই এ ইভেন্ট।
আর পাহাড়ের কোলে শত শত পেয়ারা বাগান মাড়িয়ে, ঝিরি পথের ঠান্ডা জলে পা ভিজিয়ে পথ চলার অনুভূতি হবে এই ট্যুরের বাড়তি পাওনা। সময় সংকুলান হলে পাশের একটি ঝর্ণাও দেখিয়ে আনবো আপনাদের।

এই ট্যুরে আমরা দেখবোঃ
কাল ভৈরবী মন্দির
অগ্নিকুন্ড
জ্বালামুখি কালিবাড়ি (নিম কাঠের কালিমূর্তি)
দেশের একমাত্র হট স্প্রিং বা গরম পানির ঝর্ণা
সংলগ্ন পাথুরে ঝিরি
সময়ে কুলালে সংলগ্ন ঝর্ণা
সীতাকুন্ডের পাহাড় অভ্যন্তরের নামকরা পেয়ারার বাগান
আমরা আরোহণ করবো চট্টগ্রামের সর্বোচ্চ পর্বত চন্দ্রনাথ শীর্ষ (১১৫৮ ফুট)
অক্ষয়বট
স্বামী বিবেকানন্দের লাগানো পঞ্চবটী
প্রেমতলা
গজার পুকুর
ব্যাসকুন্ড পুকুর
ব্যাসকুন্ড মন্দির (চোরাবালি সিনেমার শুটিংস্থল)
সয়ম্ভুনাথ মন্দির
অন্নপূর্ণা মন্দির
নারায়ণ মন্দির
বিষ্ণু মন্দির
সংকর মঠ
ছত্রশিলা পাথর
মহাস্মশান (একমাত্র স্মশান যেখানে হিন্দু ও বৌদ্ধ উভয়ের সতকার হয়)
দধি ভৈরব (এই গর্তে দুধ ঢাললে দই হয়ে যায়)
দধিকুন্ড
৯০০ ফুট উচু বিরুপাক্ষ মন্দির
গয়াক্ষেত্র
হনুমান মন্দির
জগন্নাথ মন্দির
রামকুন্ড
লক্ষণকুণ্ড
মোহন্তের আস্তানা
পাহাড় থেকে বঙ্গোপসাগর ও সন্দীপ
ফটিকছড়িতক বিস্তৃত পাহাড়সারি
অধুনা প্রতিষ্ঠিত কৈলাশ মন্দির
আমাদের অতীতে আশ্রয় দেয়া তান্ত্রিক সাধক দাদু
কালোযাদুর দেবী ছিন্নমস্তার মূর্তি
তথাকথিত (বিতর্ক আছে) শিবের দেহ
ইত্যাদি ইত্যাদি
সীতাকুন্ডে আমরা একদিনে এত কিছু দেখবো যে তার ফিরিস্তি বহু লম্বা হয়ে যাচ্ছে এবং যাবে। তা স্বত্বেও যারা সত্যিকার জ্ঞান পিপাসু, অনুসন্ধিৎসু মনের অধিকারী, রহস্য অনুসন্ধানী, ইতিহাস ও প্রত্নতত্ব নিয়ে আগ্রহী, অন্য জাতি ও ধর্মকে যারা সন্মান করতে জানেন, প্রকৃতি ও মানুষকে ভালোবেসে প্রকৃতিকে জানতে চান তাদের জন্যই এই আয়োজন। যারা জানতে আগ্রহী নন, ইভেন্ট ডিটেইলসের এত কথা যাদের বোরিং মনে হচ্ছে, শুধুমাত্র নিছক বিনোদন বা আনন্দের আশায় যারা আসবেন তাদের আসতে নিরুৎসাহিত করছি। তাদের জন্য পরবর্তীতে ভিন্ন আয়োজন থাকবে।

সকল ট্রান্সপোর্টে বেটার ও আরামদায়ক আসন সমূহ নারী ও সিনিয়রদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে।
যারা ঢাকা বা অন্য জেলা থেকে এই ইভেন্টে যোগ দিতে চট্টগ্রাম আসবেন তাদের জন্য ফিরতি টিকেটের ব্যাবস্থা পেমেন্ট করা সাপেক্ষে আমরা করে দিবো। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের বাস ভাড়া ৪৮০ টাকা । শত শত বাস চলে, রাত ১১-১২টার বাসে উঠলে ভোর নাগাদ আমাদের রিপোর্টিং প্লেসে (একে খান মোড়ে) নামিয়ে দিবে। চার লেন হবার পর এখন ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম আসতে ৫ ঘন্টার বেশি লাগেনা। যারা আসবেন তাদের সবাইকে কো-অর্ডিনেট করার দায়িত্ব আমাদের কিন্তু আগেভাগে যোগাযোগ করতে হবে। ঢাকা থেকে এসে এই ট্যুর শেষ করে ঢাকায় ফিরতে ১৫০০-১৬০০ টাকা খরচ হবে বড়জোর।

 

ট্যুর প্ল্যানঃ আমরা সকাল ৬ঃ৩০ মিনিটে একে খান মোড় থেকে রওয়ানা হবো বাসে (মানুষ বেশি হলে রিজার্ভ বা না হলে সার্ভিস ট্রান্সপোর্ট)। প্রথমেই আমরা ঘুরে দেখবো রহস্যময় ট্রেইল, হট স্প্রিং, কালভৈরবী। তারপর সিএনজি বা বাসযোগে আমরা যাবো সীতাকুন্ড বাজারে। দুপুরের লাঞ্চ আমরা করবো সীতাকুন্ড বাজারে। তারপর আমরা প্রেমতলা ব্যাসকুন্ডে যাবো। তারপর চন্দ্রনাথ আরোহণ করবো। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার মধ্যে আমরা চন্দ্রনাথ থেকে নেমে আসবো। রিজার্ভ বা সার্ভিস গাড়িতে আমরা ফিরে আসবো চট্টগ্রাম শহরে। চট্টগ্রাম হতে যাত্রার তারিখ : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৬ (শুক্রবার), ভোর ৬.৩০ মি: চট্টগ্রামে ফেরার তারিখ : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৬ (শুক্রবার), রাত ৮.৩০ মি: রিপোর্টিংঃ একে খান মোড়ের সিএনজি পাম্পের সামনে খরচঃ যারা চট্টগ্রাম থেকে যাবেন তাদের জন্য ৬০০ টাকা। যারা ঢাকা থেকে আসবেন তাদের যাতায়াত খরচটা যুক্ত হবে যারা যাবেন তারা ২১ ডিসেম্বরের মধ্যে পুরো টাকা বিকাশ করে কনফার্ম করবেন। বিকাশ করার জন্য ফোন করুন ০১৭১২৪৬৯৯৩৫ নাম্বারে। বিকাশ করার পর ফোনে জানান, এবং বিকাশ করার পর ফোন করে প্রাপ্তি স্বীকার নিশ্চিত হোন। এটি একটি কমার্শিয়াল ইভেন্ট। ইভেন্ট শেষে কোন টাকা ফেরত পাওয়া যাবেনা। ঠিক তেমনি অনিবার্য কারণে আয়োজকদের অতিরিক্ত খরচ হলে আপনাদের কোন টাকা দিতেও দিতেও হবেনা। যারা কমার্শিয়াল ইভেন্টে যেতে চান না তারা আমার সাথে ব্যাক্তিগত ভাবে যোগাযোগ করুন, আমি পার্সোনালি একটা ন্যাচার স্টাডি এন্ড এডভেঞ্চার ক্লাবের ফাউন্ডার, সেখান থেকে নিয়মিতই একচুয়াল কস্ট ইভেন্ট পরিচালনা করা হয়।

INCLUDED/EXCLUDE

    এই টাকার বিনিময়ে সার্ভিস হিসেবে পাবেনঃ
    সকল প্রকার ট্রান্সপোর্ট (বাস, সিএনজি, রিকসা, অটো যেখানে যা প্রযোজ্য)
    দুপুরে লাঞ্চ।
    হালকা স্ন্যাক্স।
    একাধিক শিক্ষিত ও অভিজ্ঞ গাইড।
    শিক্ষিত ও রুচিশীল ভ্রমণসঙ্গী
    ট্রাভেলিং কমিউনিটির সাথে সংযুক্ত হবার সুযোগ
    ইকোট্যুরিজম ও লিভ নো ট্রেস প্রিন্সিপাল মেনে ইকোট্যুরিষ্ট হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার সুযোগ।
     

    সার্ভিস হিসেবে যা পাবেন নাঃ
    সকালের নাস্তা (সকাল ৬ঃ৩০ এর পূর্বেই নিজ দায়িত্বে করে নিবেন)
    কোন প্রকার চিকিৎসা, ঔষধ, ব্যাক্তিগত খরচ
    সেট মেন্যুর বাইরে অর্ডার করা কোন খাবারের খরচ

CONDITIONS

আমাদের মটোই হচ্ছে প্রমোটিং ইকোট্যুরিজম। সুতরাং কোন ভাবেই পরিবেশের ক্ষতি হয় এমন কিছু করা যাবেনা। বিস্কুট-চিপস বা অন্যকিছুর প্যাকেট, কোমল পানীয়ের বোতল ডাস্টবিনে ফেলবেন। ডাস্টবিন না থাকলে পরবর্তী বিন পাবার আগ পর্যন্ত ক্যারি করবেন, তবু যত্রতত্র ফেলবেন না। মাদকের তো প্রশ্নই আসেনা এমনকি ধূমপানেও সতর্ক হতে হবে যাতে আপনার ধূমপান অন্যের সমস্যার কারণ না হয়।
কোনভাবেই অন্য ধর্মকে অসন্মান করে এমন কিছু করা যাবেনা। এবং এই ধরণের কর্মকান্ড বরদাশত করা হবে না। যাদের মন্দির দেখার ইচ্ছা নেই তারা অন্যদের জন্য অপেক্ষা করবেন।
নারীরা সকল ক্ষেত্রে সমধিকার নয়, বরং অগ্রাধিকার পাবেন।

Reviews

Overall Rating
null / 5.0
(0 Reviews)
0% recommend this package
Average Rating For
Service null
Location null
Friendly null
Pricing null


You might also like

Location Bandarban, Chittagong
Favourite
Keokradong peak on Krishnapaksha night
0 Reviews
Location Chittagong, Chittagong
Favourite
Day trip to Sandwip island + camping
0 Reviews
Location Rangamati, Chittagong
Favourite
Mysterious incense fountain
0 Reviews